Header Border

ঢাকা, রবিবার, ২৬শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১২ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ (গ্রীষ্মকাল)
শিরোনাম :
শাহরাস্তির ওয়ারুকে তাফসীরুল কোরআন মাহফিলে আলোচনা করলেন শায়খ আহমাদুল্লাহ আইন পেশা একটি মহৎ পেশা, দেশের কল্যাণে এ পেশাকে কাজে লাগাতে হবে: প্রধান বিচারপতি শাহরাস্তিবাসীকে কৃতজ্ঞতা ও শুভেচ্ছা জানালেন নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান ইঞ্জিঃ মকবুল হোসেন শাহরাস্তিতে অসহায়দের মাঝে ২২ লক্ষ টাকার চেক ও নগদ অর্থ বিতরণ জিয়াউর রহমান কাকুতি মিনতি করে বাকশালের সদস্য হয়েছিলেন: বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী নানক শাহরাস্তি উপজেলার নয়া চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলেন ইঞ্জিঃ মকবুল হোসেন পাটওয়ারী চাঁদপুরের তিন উপজেলায় হুমায়ুন-হেলাল-মকবুল চেয়ারম্যান নির্বাচিত বাংলাদেশ-যুক্তরাষ্ট্র সিরিজ: হৃদয়ের ফিফটিতে টাইগারদের দেড়শ শাহরাস্তি উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলেন ইঞ্জিঃ মকবুল, ভাইস চেয়ারম্যান হলেন মিলন ও হাসিনা  নাটোরে বিএনপির বহিষ্কৃত নেতা চেয়ারম্যান নির্বাচিত

শীতেই কেন বেশি মানুষ বিয়ে করেন?

লাইফস্টাইল ডেস্ক
যারা বিয়ে করবেন করবেন বলে মনের মাঝে রঙিন স্বপ্ন দেখছেন এবং ভাবছেন, তারা নিশ্চয়ই শীতের এক সুন্দর দিনের জন্য অপেক্ষা করছেন। কারণ, শীতের সঙ্গে বিয়ের যেন একটা মধুর সম্পর্ক আছে।

আর তাই তো বছরের যেকোনো সময়ের তুলনায় শীতকাল এলেই বিয়ের ধুম পড়ে যায়। কিন্তু শীতকালেই কেন এত বেশি মানুষ বিয়ে করেন? অনেকেই এটার অনেক কারণের কথা বলেন।

জেনে নিন শীতে বিয়ে করার নানা সুবিধাজনক দিক-

দেশে যত বিয়ে হয়, তার একটা বড় অংশ হয় এই সময়ে। যারা বিয়ে করবেন ভাবছেন, তারা শীতের এক সুন্দর দিনের জন্য অপেক্ষায় থাকেন। কেননা, এই সময় স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়সহ প্রায় সমস্ত প্রতিষ্ঠানের একটা বার্ষিক ছুটি চলে। তাই আত্মীয়স্বজন যে যেখানে আছেন, সবাই মিলিত হতে পারেন। বিয়ের মতো একটা বড় আয়োজনের জন্য যথেষ্ট সময় পাওয়া যায়।

শীতকালের সঙ্গে বাঙালির উৎসবের একটা সম্পর্ক আছে। শীতে বিয়ের মতো আয়োজন অনেক সহজ হয়ে যায়। মেকআপ থেকে খাওয়া-দাওয়া সবকিছুই করা যায় স্বস্তিতে।

বিয়ের আয়োজনে কনেকে সবচেয়ে সুন্দর দেখানো চাই। তাই সব মেয়েই বউ সাজার জন্য পছন্দ করেন শীতকালকেই।

যত দামি মেকআপই হোক না কেন, গরমে ঘেমে নষ্ট হয়ে যাওয়ার ঘটনা খুবই স্বাভাবিক। শীতকালে সেই ভয় নেই। দিব্যি ইচ্ছেমতো বউ সাজার স্বাধীনতা পাওয়া যায়।

এ ছাড়া গরমকালে খাওয়া-দাওয়া রয়েসয়ে খেতে হয়। একটু এদিক-সেদিক হলেই পেটে সমস্যা হয়ে যায়। বিয়ে মানেই বিশেষ খানাপিনা। তাই বিয়ের জন্য শীতকালই উপযুক্ত সময়।

আর বিয়ে মানেই খাটাখাটুনি। গরমে একটু পরিশ্রমেই হাঁপিয়ে উঠতে হয়। শীতে সেই ভয় নেই। বরং বিয়ের উৎসবে উচ্চ আওয়াজের গান ছেড়ে দিয়ে ছুটাছুটি করে কাজ করলে শীত কম লাগে।

এ ছাড়াও বিয়ের খুবই গুরুত্বপূর্ণ অনুষঙ্গ হলো ফুল। যা শীতকালে খুবই সহজলভ্য। এ সময় প্রচুর ফুল ফোটে। ফলে গায়ে হলুদে গাঁদা, ডালিয়া, চন্দ্রমল্লিকা, জারবেরা এগুলোতে ফুলের সমস্যা হয় না।

ফুলের দিক থেকে গোলাপেরই দাবিই বেশি। আর এ ফুলটিও শীতকালে সহজেই পাওয়া যায়। বেলিও ঠিকই নিজের জায়গা করে নেয় এই উৎসবে। এছাড়াও কম-বেশি সব ফুলই এ সময় পাওয়া যায়।

এছাড়া ফ্যান বা এসির ঝামেলা নেই। বিদ্যুৎ খরচ কম হয়। বিয়ের অবশিষ্ট খাবার নষ্ট হওয়ারও আশঙ্কা কম।

শীত মানেই ঘুরাঘুরি। আর তাই বিয়ের পর হানিমুনে ঘোরাঘুরির জন্য শ্রেষ্ঠ সময় হল শীতকাল।

প্রিয় পোষ্ট সর্বশেষ খবর পেতে গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি অনুসরণ করুন


আপনার মতামত লিখুন :

আরও পড়ুন
লাইফস্টাইল কী?
প্রিয়জনকে আলিঙ্গন করলে ডিপ্রেশন কমে
তীব্র ঠান্ডায় শরীর গরম রাখবে যেসব খাবার
যেসব গোপন ইচ্ছা নারীদের থেকে লুকিয়ে রাখেন পুরুষরা
বিয়েতে গায়ে হলুদের প্রচলন কীভাবে
বিয়ের পর নারীরা কেন মোটা হয়?

লাইফস্টাইল এর আরও খবর

সম্পাদক: অধ্যাপক মোঃ শাহাদাত হোসেন, প্রধান সম্পাদক: জাহাঙ্গীর আলম হৃদয়, প্রকাশক: আবু সাঈদ ইকবাল মাসুদ সোহেল, মিডিয়া ভিশন লন্ডন থেকে প্রকাশিত।   ঢাকা কার্যালয় (অস্থায়ী): শহীদ ভিলা, বাসা- ২৫, কাঠালবাগান, গ্রীনরোড, ঢাকা-১২০৫