Header Border

ঢাকা, সোমবার, ১৭ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৩রা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ (বর্ষাকাল)

মেহেদির রং উঠানোর সহজ উপায়!

মুসলমানদের সবচেয়ে বড় দুটি ধর্মীয় উৎসব হলো ঈদ। আর এ ঈদে নানা নকশার মেহেদি আঁকা হয় হাতে। এতে নারীদের ঈদের সাজের সৌন্দর্য বৃদ্ধি পায় বহুগুণ।

তবে ঈদ শেষ হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে মেহেদির রংও ফিকে হতে শুরু করে। তখন আর দেখতে আগের মতো সুন্দর লাগে না। মেহেদির রঙ উঠে যেতে শুরু করলে বরং দেখতে কিছুটা বিদঘুটে লাগে। তখন অনেকে চান যে যত দ্রুত সম্ভব তুলে ফেলতে। তবে তা আর সব সময় সম্ভব হয় না। এই কাজ সহজ করতে বেছে নিতে পারেন কিছু উপায়। চলুন জেনে নেওয়া যাক-

লেবুর রসের ব্যবহার:
লেবুর রসের ব্লিচিং উপাদান মেহেদির তুলে ফেলতে দারুণ কার্যকরী। এক্ষেত্রে একটি রসালো লেবু দুই ভাগ করে মেহেদির স্থানে ঘষতে হবে। এরপর কুসুম গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে। একটি গামলায় আধা গামলা পানি নিয়ে তাতে ৫-৬ টেবিল চামচ লেবুর রস মিশিয়েও তাতে হাত ডুবিয়ে রাখতে পারেন। এভাবে দিনে দু’বার করলে দ্রুতই মেহেদির রঙ উঠে যাবে।

টুথপেস্টের ব্যবহার:
দাঁত পরিষ্কারের পাশাপাশি আরো অনেক কাজে লাগে টুথপেস্ট। এটি মেহেদির রঙ তুলে ফেলতেও দারুণ কার্যকরী। মেহেদির স্থানে টুথপেস্ট দিয়ে পাতলা আস্তরণ তৈরি করে শুকানো পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। এরপার আলতো হাতে ভেজা কাপড় দিয়ে শুকনো টুথপেস্ট মুছে নিন। এরপর মাখুন ময়েশ্চারাইজিং লোশন। এভাবে ব্যবহার করলে দ্রুত ফল পাবেন।

লবণ পানির ব্যবহার:
লবণ-পানির নানা ধরনের ব্যবহার আছে। তার মধ্যে একটি হলো, এটি মেহেদির রঙ তুলে ফেলতে কাজ করে। একটি গামলায় পানি ভরে তাতে খানিকটা লবণ মিশিয়ে মিনিট বিশেক হাত ডুবিয়ে রাখুন। সুফল পেতে একদিন পরপর লবণ-পানি ব্যবহার করুন। তবে বেশিক্ষণ লবণ পানিতে হাত ডুবিয়ে রাখলে ত্বক শুষ্ক হয়ে যেতে পারে, তাই প্রতিবার অবশ্যই ময়েশ্চরাইজার ব্যবহার করবেন।

 

প্রিয় পোষ্ট সর্বশেষ খবর পেতে গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি অনুসরণ করুন


আপনার মতামত লিখুন :

আরও পড়ুন
লাইফস্টাইল কী?
প্রিয়জনকে আলিঙ্গন করলে ডিপ্রেশন কমে
তীব্র ঠান্ডায় শরীর গরম রাখবে যেসব খাবার
যেসব গোপন ইচ্ছা নারীদের থেকে লুকিয়ে রাখেন পুরুষরা
বিয়েতে গায়ে হলুদের প্রচলন কীভাবে
বিয়ের পর নারীরা কেন মোটা হয়?

লাইফস্টাইল এর আরও খবর

উপদেষ্টা মন্ডলীর সভাপতি: ড. মোয়াজ্জেম হোসেন, সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি: এ্যাড. মো. হেলাল উদ্দিন, সম্পাদক: অধ্যাপক মো. শাহাদাত হোসেন, নির্বাহী সম্পাদক: মো. ওমর ফারুক দর্জি, প্রকাশক: আবু সাঈদ ইকবাল মাসুদ সোহেল কতৃক সেন্ট পলস ক্যাথিড্রাল লন্ডন থেকে প্রকাশিত
বাংলাদেশ অফিস: (অস্থায়ী) শহীদ ভিলা, বাসা- ২৫, কাঠালবাগান, গ্রীণরোড, ঢাকা-১২০৫